শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৩:৪৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
কুষ্টিয়া কুমারখালীর সদকী সুলতানপুর বাজার এলাকা থেকে ১৭৪ পিস ইয়াবা সহ ১ জন আটক কুষ্টিয়ায় কিশোরী গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু পদ্মা নদীতে ধরা পড়লো ২৮ কেজি ওজনের বাঘাইড় মাছ। মেহেরপুর বারাদীতে ভোক্তা অধিকারের অভিযানে জরিমানা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে শিক্ষার্থীর মোবাইল সহ কাগজপত্র ছিনতাই মধ্যরাতে বখাটের দ্বারা হেনস্তার শিকার ইবি ছাত্রীরা করোনার সংক্রমণে কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক সাইদুর রহমানের ইন্তেকাল পিলখানা ট্র্যাজেডির দিন আজ প্রেম করে বিয়ের ৬ বছর পরে পরকীয়া প্রেম করে ডিভোর্স না দিয়েই বিয়ে করলেন স্ত্রী, অসহায় স্বামী কুমারখালীতে প্রেমিকাকে যৌন পীড়নের অভিযোগে প্রেমিক গ্রেফতার
 কুষ্টিয়ায় ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন বহিস্কিত সেই শিল্পী মেম্বার

 কুষ্টিয়ায় ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন বহিস্কিত সেই শিল্পী মেম্বার

 কুষ্টিয়ায় আসছে ইউনিয়ন নির্বাচন। নির্বাচনকে সামনে রেখে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন বিধবা, মাতৃত্বকালীন ও বয়স্কভাতার কার্ড প্রদানের নামে অর্থ আদায়ের অভিযোগে বহিস্কার হওয়া কুষ্টিয়ার ববটতৈল ইউনিয়নের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য শিল্পী খাতুন।
নিজের অপরাধের জন্য ক্ষমা চেয়ে আগামীতে যেনো আবারো প্রার্থী হতে পারেন সে জন্য তার বহিস্কার আদেশ প্রত্যাহারের জন্য এখন বিভিন্ন দপ্তর ও নেতার দ্বারে দ্বারে ধর্ণা দিচ্ছেন ।
এর আগে বিধবা, মাতৃত্বকালীন ও বয়স্কভাতার কার্ড প্রদানের নামে অর্থ আদায়ের অভিযোগ তদন্তে প্রমানিত হওয়ায় কুষ্টিয়া বটতৈল ইউনিয়নের ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের এই সমালোচিত শিল্পী মেম্বারকে বরখাস্ত করেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার স্থানীয় সরকার।
পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় স্থানীয় সরকার বিষয়ক ইপ-১ অধিশাখার উপসচিব মোহাম্মদ ইফতেখার আহামেদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত ৪৬.০০.৫০০০.০১৭.২৭.০০১.১৯-২১৮ স্মারকে
২০০৯ এর ৩৪(১) ধারা অনুযায়ী উল্লেখিত ইউপি মহিলা সদস্য শিল্পীকে তার পদ হতে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়।
উল্লেখ্য, বয়স্ক, বিধবা, পুঙ্গ, মাতৃকালিন ভাতা, ভিজিএফ, চালের কার্ড, নলকুপ প্রদান, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকুরী দেয়ার নামে মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়ে শত শত মানুষের কাছে থেকে কৌশলে মোটা অংকের নগদ অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে কুষ্টিয়ার বটতৈল ইউনিয়নের সেই শিল্পী মেম্বারের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসক ও চেয়ারম্যান এর কাছে মেম্বার বিচার দাবী করে আবেদন করেন অর্ধশত প্রতারিত নারী-পুরুষ । আবেদন পাওয়ার পর বটতৈল ইউনিয়ন পরিষদ থেকে শিল্পী মেম্বারের বিরুদ্ধে নতুন করে তদন্ত শুরু করেন ইউনিয়ন সচিব প্রশান্ত কুমার প্রদীপ। সেই তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পান তদন্ত কমিটি। তদন্তে সত্যতা পাওয়া গেলেও কেন কি কারনে কর্তৃপক্ষ এই মেম্বারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়ায় ইউনিয়ন বাসীর মধ্যে নানা সমালোচনার ঝড় উঠে ।
পরে আলোচিত শিল্পী মেম্বরের বিরুদ্ধে অভিযোগকারী ভুক্তভোগী ৩২ জন মহিলার অভিযোগের তদন্তে শতভাগ সত্যতা পাওয়ার পর আবারও পুণ:তদন্তের আবেদন করেন শিল্পী মেম্বর। এছাড়াও তিনি দল করেন তার কিছুই হবে না বরং পরে অভিযোগকারীদের দেখে নেয়া হবে এমন হুমকি ধাকমি দিতে থাকেন শিল্পি খাতুন। তার বিরুদ্ধে সরকারী বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা দেয়ার নামে অসহায় নারী-পুরুষের কাছে সু-কৌশলে টাকা নিয়ে কোন প্রকার সুযোগ-সুবিধা না দিয়ে টাকা ফিরত চাইলে উল্টো ভুক্তভোগীদের মারধর করাসহ অভিযোগের অন্তনেই যা বার বার তদন্তে প্রমানিতও হয় ।
অপর দিকে মেম্বারের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুবায়ের হোসেন চৌধুরী বরাবর গত বছরের ১৭ই নভেম্বর লিখিত অভিযোগ করেন ৩২ জন ভুক্তভোগী নারী। এর পেক্ষিতে ওই বছরের ৩ ডিসেম্বর এই অভিযোগের তদন্ত করে কুষ্টিয়া সদর উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মর্জিনা খাতুন ও সমাজসেবা অফিসার আবু রায়হানের তদন্ত দল। বটতৈল ইউনিয়ন পরিষদে তদন্ত দলের উপস্থিতি টের পেয়ে কৌশলে সটকে পড়েন ওই শিল্পী মেম্বর। এ সময় খবর পেয়ে সেখানে অভিযোগ জানাতে উপস্থিত হন প্রায় ৫০ জন ভুক্তভোগী অভিযোগকারী। সে সময় বটতৈল ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এ এ মোমিন মন্ডল উপস্থিত ছিলেন। চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতেই তদন্ত টিমের কাছে ভুক্তভোগী প্রায় অঅর্ধশত ক্ষতিগ্রস্তরা প্রকাশ্যে অভিযোগ করেন। সে তদন্তেও সত্যতা পান তদন্ত কমিটি।
বটতৈল এলাকার ৪ ওয়ার্ডের রোকেয়া খাতুনসহ অর্ধশত নারীর কাছে থেকে বয়স্কভাতা, বিধবাভাতা, মাতৃকালীন ভাতা ও চাকুরী দেয়ার নামে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এভাবে গত ৩ বছরে ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের শত শত নারী পুরুষের কাছে থেকে বিভিন্ন সুবিধা দেয়ার নামে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে ওই প্রভাবশালী শিল্পী মেম্বর। পরে টাকা ফেরত চাইতে গিয়ে ওই শিল্পী মেম্বর ও তার স্বামীর নির্যাতনের শিকার হয়েছেন বেশ কয়েকজন ক্ষতিগ্রস্ত নারী ও তার সন্তানেরা।
ওই শিল্পী মেম্বরের বিরুদ্ধে একাধিকবার তদন্তে সত্যতা পাওয়ার পর
৪৬.০০.৫০০০.০১৭.২৭.০০১.১৯-২১৮ স্মারকে ২০০৯ এর ৩৪(১) ধারা অনুযায়ী তাকে সাময়িক বহিস্কার করা হয়। আসছে ইউনিয়ন নির্বাচন। নির্বাচনের আগেই তার বহিস্কার আদেশ প্রত্যাহার ও আবার প্রার্থী হওয়ার প্রত্যাশায় বিভিন্ন দপ্তর ও কতিপয় নেতাদের কাছে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন এই বহিস্কিত শিল্পী মেম্বর।

এই সংবাদটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © swadeshbarta24.com
Design & Developed BY Anamul Haque Rasel