রবিবার, ২৫ Jul ২০২১, ০৩:০২ পূর্বাহ্ন

ঘোষনা :
*** দেশের জনপ্রিয় বাংলা অনলাইন পত্রিকা স্বদেশ বার্তা ২৪ ডটকমে আপনাকে স্বাগতম।সবার আগে সর্বশেষ সংবাদ জানতে স্বদেশ বার্তা ২৪ ডটকমের সাথে থাকুন।*** স্বদেশ বার্তা ২৪ ডটকমের জন্য সারাদেশে জেলা ,উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহী প্রার্থীগণ জীবন বৃত্তান্ত, পাসপোর্ট সাইজের ১কপি ছবি ও শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্রসহ ই-মেইল পাঠাতে পারেন। শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ যে কোন বিশ্ববিদ্যালয় হতে স্নাতক পাস এবং বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজে অধ্যয়নরত ছাত্র/ছাত্রীগণও আবেদন করতে পারবেন। আবেদন প্রেরণের প্রক্রিয়াঃ ই-মেইল: news.swadeshbarta24@gmail.com প্রয়োজনে মোবাইলঃ ০১৭৮২৬৬৪০৬৬
সংবাদ শিরোনাম :
কুষ্টিয়ায় মৃত্যুর মিছিলে যোগ হলো আরো ১৭ জন কুমারখালীতে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করায় জরিমানা পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা: ফেরির মাস্টার সাময়িক বরখাস্ত কুষ্টিয়ায় ওয়ান শুটার গান ও দুই রাউন্ড গুলিসহ রাজু আটক কুষ্টিয়ার ১০৯ বছরের প্রবীন ইয়াকুব মালিথা আর নেই নড়াইলে অক্সিজেন সিলিন্ডার দিলেন আমেরিকা প্রবাসী  স্থানীয়ভাবে কোরবানির পশুর চামড়া দ্রুত লবণযুক্ত করে সংরক্ষণ করতে হবে : শিল্পসচিব কুষ্টিয়াতে জেলা পুলিশ ও বিচার বিভাগের প্রীতিভোজ অনুষ্ঠিত বিধি ভঙ্গ করে ঈদ জামাত: মালয়েশিয়ায় ৪৮ বাংলাদেশি রিমান্ডে মুজিবনগরে নিজের ব্যবহৃত রাইফেল ঠেকিয়ে পুলিশ কনস্টেবলের আত্মহত্যা যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ফল ও মিষ্টি পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী সারাদেশে উদযাপিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল আজহা টিভি চ্যানেলে ঈদের বিশেষ আয়োজন ফ্লু, করোনা, নাকি ডেঙ্গু জ্বর কোরবানির পশুর হাট, দাম কমেছে, বেড়েছে ভিড়

কুমারখালীতে সাদা মনের মানুষ ভিন্ন শিপনের জরাজীর্ণ ঘরে বসবাস

কুমারখালীতে সাদা মনের মানুষ ভিন্ন শিপনের জরাজীর্ণ ঘরে বসবাস

নিজস্ব প্রতিবেদক : যেখানে দিনে-দিনে মানুষের প্রতি মানুষ, তার বিশ্বাস ও আস্থা হারাতে বসেছে। চারিপাশে বেড়েছে চুরি, ডাকাতি আর রাহাজানি। সেখানে দোকান্দার বিহীন এক ভিন্ন রকম দেকান বসিয়ে বেশ আলোচিত হয়েছেন কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার হামিদুর রহমান শিপন। ডাকনাম শিপন হলেও লোকে তাকে ভিন্ন শিপন নামেই ডাকে। এলাকায় ভিন্ন শিপন নামটি বেশ পরিচিতিও বটে।

হামিদুর রহমান শিপন কুমারখালী পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ড কাজীপাড়া এলাকার মৃত আব্দুল জলিলের ছেলে। শিপন পেশায় একজন হকার। কলেজ পড়ুয়া মেয়ে,স্কুল পড়ুয়া ছেলে ও আরো একটি ছোট্ট মেয়েসহ পাঁচ সদস্যের পরিবার তার।
এই শিপন দোকান্দার বিহীন দোকানটি করে সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে বেশ ভাইরাল হয়। ভাইরাল হওয়ার পর বিষয়টি প্রথম শ্রেণির এবং স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকা এবং টেলিভিশনে প্রকাশ পায়। ভিন্ন শিপনের ভিন্ন রকম ব্যাপারটি তখন আরো ব্যাপকতরভাবে প্রচারিত হয়।
ভিন্ন শিপনের কাজগুলো গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে সে আরো বেশি উৎসাহিত, অনুপ্রেরিত ও আনন্দিত হয়। ফলে কুমারখালী রেল স্টেশন এলাকায় শুরু করেন ফ্রিতে তৃষ্ণার্ত মানুষকে পানি পান করানোর কাজ। এছাড়াও কুমারখালী রেল স্টেশনের যাত্রী ছাউনিতে ফ্যান বসানো, মরা মানুষকে ফ্রিতে কাফনের কাপড় দানসহ নানান সামাজিক ও মানবিক কাজ করে চলেছেন শিপন।
কিন্তু যে মানুষটি সাদা মনে সামাজিক, মানবিক ও মানুষের প্রতি মানুষের বিশ্বাস স্থাপনে ভিন্ন রকম কাজ করে চলেছেন, সেই মানুষটিই কলেজপড়ুয়া মেয়ে, দুই সন্তানসহ স্ত্রী নিয়ে এক কক্ষে জরাজীর্ণ অবস্থায় বসবাস করছেন। পর্যাপ্ত ও মানসম্মত শয়ন কক্ষের অভাবে পরিবার পরিজন নিয়ে এক দুর্বিষহ জীবন – যাপন করছেন তিনি।
জানা যায়, শিপন পেশায় একজন হকার। কখনো বাসে বা ট্রেনে চেপে আবার কখনো ফুটপাতে বসে গামছা, রুমাল, লুঙ্গি, তোয়ালে, ওড়না বিক্রি করে বেড়ান। এতে যা আয় হয়, তা দিয়ে পাঁচ সদস্যের পরিবার নিয়ে পৌরসভার এক নম্বর ওয়ার্ড কাজীপাড়ায় একটি জরাজীর্ণ ঘরে বসবাস করেন।
আরো জানা যায়, মেয়ে কলেজে পড়াশোনা করে। আর এক ছেলে স্কুলে মাধ্যমিকে পড়ে। আরো একটি মেয়ে বাচ্চা আছে। তাদের সুষ্ঠ ও সুন্দর বসবাসের জন্য অনেক আগেই আলাদা আলাদা কক্ষের প্রয়োজন ছিল। কিন্তু অর্থনৈতিক দৈন্যদশায় আজও তারা এক কক্ষে সবাই মিলে বসবাস করেন। অন্তত তিনকক্ষ বিশিষ্ট একটি ঘরের অতি প্রয়োজন হয়ে দাঁড়িয়েছে শিপনের।
এবিষয়ে আলোচিত ও ভাইরাল হামিদুর রহমান শিপন বলেন, ক্ষুদ্র প্রয়াসে সাধ্যমত চেষ্টা করছি মানুষের পাশে দাঁড়ানো, মানুষের ভালবাসা অর্জনের। মানুষের প্রতি মানুষের ভালবাসা, আস্থা ও বিশ্বাস স্থাপনের। তিনি আরো বলেন, আমি একজন হকার। কলেজপড়ুয়া মেয়েসহ পাঁচ সদস্যের একটি সংসার আমার। আমরা সবাই একই কক্ষে দুইটি বিছানায় থাকি। অর্থাভাবে সভ্য জগতে আমার বসবাসটাও ভিন্ন।
শিপনের স্ত্রী বলেন, মেয়ে বড় হয়ে গেছে। বিয়ে দিতে হবে। একঘরে সবাই থাকি, এভাবে তো আর মেয়ের বিয়ে দিতে পারিনা। তিনি আরো বলেন, তিন শতক জমি কিনেছি। কিন্তু ঘর করার টাকা নেই। হয়তো কোনদিনও ঘরের টাকা হবেও না।
শিপনের কলেজ পড়ুয়া মেয়ে বলেন, আশেপাশে আমার বয়সী মেয়েরা আলাদা কক্ষে বসবাস করে। কিন্তু বাবা গরিবব, তাই আজও সবাই কক্ষেই থাকি। তিনি আরো বলেন, আমি দিনমজুর বাবাকে নিয়ে গর্ব করি।
উল্লেখ্য যে, কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে দোকান্দার বিহীন এক দোকান চলছে ২০১৩ সাল থেকে। দোকানটি কুমারখালী রেলস্টেশনের যাত্রী ছাউনির পিছনে অবস্থিত। দোকান ভরা পণ্যের সয়লাব। ক্রেতারা আসছেন, দেখছেন, অবশেষে পছন্দের পণ্যটি কিনছেন। দোকানে বেঁচাকেনাও বেশ ভাল। তবে দোকানে নেই শুধু কোন দোকান্দার। এমন ভিন্নরকম দোকান বসিয়েই আলোচিত ও পরিচিত শিপন।
ভিন্ন শিপন মানুষ কে নিয়ে ভাবতে পারে, তবে আমরা কি পারি না ভিন্ন শিপন কে নিয়ে ভাবতে।

এই সংবাদটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Design & Developed BY Anamul Haque Rasel